এই সাইটে প্রকাশিত সমস্ত কবিতার একমাত্র স্বত্বাধিকার ফরিদ কবির
এখন রাস্তাকে এখন ছায়াকে

এখন রাস্তাকে এখন ছায়াকে

আমি নিচে, রাস্তা ছিলো আমার ওপরে
উঠে দাঁড়াতেই রাস্তা মুখোমুখি হলো

আমিও সছায়া, সর্বভুক 
সমুদ্রের মতো বাড়ালাম সম্মুখে পা
আমার শরীর থেকে ঝনঝন ছিটকে পড়লো
এক শত অগ্নির টুকরো 
সে তার তরল জিভে তুলে নিলো রাস্তার শরীর

রাস্তা কি নিঃসঙ্গ ছিলো?

চুলে-চোখে যন্ত্রণার চিহ্ন 
গেঁথে নিয়ে রাস্তা তাকালো আমার দিকে
চোখে টলটলে লাল খুন
তারপর মৃত বেড়ালছানার মতো
আমার ছায়াকে দাঁতে গেঁথে 
চলে গেলো নির্জন শহরে

এখন রাস্তাকে
এখন ছায়াকে আমি কোথাও দেখি না! 

Now the road, the shadow

I am below, the road lies above me.
As I got up on my feet, road stood face to face.

With my shadow I too like the all-devouring
Sea, stepped forward
From my body a hundred fragments of fire
Clamoured and spattered, and
With its fluid tongue lapped up the body of the road.

Was the road lonely?

With pain pinned onto its hair and eyes
The road looked up at me.
Eyes brimmed with red blood.
Picked up my shadow pierced between its teeth
Like a dead kitten, and then
Walked away to the desolate city.

Now neither the road nor
The shadow do I see.

Leave a Reply

Close Menu